১৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং | ৩রা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঈদকে সামনে রেখে বরিশালে তৎপর বিএমপি ট্রাফিক পুলিশ

শাকিল মাহমুদ ।। বিগত বছরগুলোর থেকে এবারের ঈদুল আযহা অনেকটা ভিন্ন। করোনার এই ক্রান্তি লগ্নে ঈদের ছুটি ও আগে-পরে নিরাপত্তা শঙ্কা এড়াতে নানা পদক্ষেপ গ্রহন করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। এছাড়া রাস্তাঘাটে যানজট নিরসন, পশু বহনকারী গাড়ি থেকে চাঁদাবাজিসহ সবধরনের অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও নজরদারি বাড়াতে এরই মধ্যে দেওয়া হয়েছে নির্দেশনা। এছাড়া যেকোনও জরুরি প্রয়োজনে ৯৯৯-এর সহযোগিতা নিতেও নাগরিকদের অনুরোধ জানানো হয়েছে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের অফিস সূত্রে জানা যায়, বরিশাল মেট্রোপলিটন এলাকার কালিজিরা, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, রহমতপুর, নতুল্লাবাদ বাস টার্মিনাল, রূপাতলী বাস টার্মিনাল এলাকাগুলোতে ট্রাফিক ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এছাড়া লঞ্চঘাট এলাকায় বিশেষ নজরদারি বাড়ানোর পাশাপশি ঢাকা থেকে আগত যাত্রীরা যাতে কোন প্রকার যানজট ছাড়াই নির্ভিগ্নে বাড়ি পৌছাতে পারে সে কারনে রাস্তাঘাট ফাকা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

অফিস সূত্রে আরও জানা যায়, ট্রাফিক সার্জেন্টরা ডিউটির পাশাপশি নিদিষ্ট এলাকাগুলোতে কোন প্রকার যানজট যাতে সৃষ্টি না হতে পারে সেদিকে লক্ষ রাখবে। এছাড়া প্রতিটি রাস্তার বাম দিকে যাতে সম্পূর্ন ফাকা রাখাসহ মোড়ে যাতে কোন যানবাহন দাড়িয়ে না থাকতে পারে সে দিকে এবার বিশেষ নজরদারি রাখবে ট্রাফিক পুলিশ। এছাড়া বরিশাল নগরীর ফুটপাত ও রাস্তায় অবৈধভাবে দখল করে ব্যবসা করা হকারদের উচ্ছেদসহ রাস্তার উপরে অবৈধ ভাবে গাড়ি পাকিং এর ফলে যারা রাস্তায় চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযান প্রতিনিয়ত হচ্ছে। ঈদ উপলক্ষে এ অভিযান আরও জোরদার করা হবে বলে জানা গেছে।

ট্রাফিক অফিস সূত্রে আরও জানা যায়, কোরবানির ঈদ ও অগাস্ট মাস সামনে রেখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় বরিশাল মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ বিশেষ নজরদারি বাড়িয়েছে। ট্রাফিক পুলিশ বকস গুলোতে পুলিশ ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে না দেওয়াসহ ট্রাফিক পুলিশে কর্মরত সকলের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল বা গাড়ির দিকে লক্ষ রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া কোন গাড়িকে সন্দেহ হলে সাথে সাথে তা তল্লাশির নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া জনবহুল এলাকা ও নতুল্লাবাদ বাস টার্মিনাল ও রূপাতলি বাস টার্মিনাল এলাকায় নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এদিকে বিশেষ করে কোরবানির পশু বহনকারী গাড়ি না থামানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পশু বহনকারী গাড়ি যাতে দ্রুত তার নিদিষ্ট গন্তব্যে পৌছাতে পারে সে দিকে লক্ষ রেখে রাস্তা যানজট মুক্ত রাখার উপর জোর দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কেউ যাতে পশু বহনকারী গাড়ি থেকে চাঁদাবাড়ি না করতে পারে সেদিকে লক্ষ রাখতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) জাকির হোসেন মজুমদার জানান, এবারের ঈদে মেট্রোপলিটন এলাকার রাস্তা গুলোকে যানজট মুক্ত রাখাই আমাদের প্রধান লক্ষ। এছাড়া ফুটপাত ও রাস্তা হকারদের দখল থেকে মুক্ত করতে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। পাশাপাশি এবার মেট্রো এলাকায় কোন পশু বহনকারী যানবাহন না থামানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া কোন গাড়ি থেকে যাতে চাঁদাবাজি না করা হয় সেদিকে বিশেষ নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে।##

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn

অন্য খবর